বা়ংলার প্রথম পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল সাহিত্য পত্রিকা
Browsing Tag

কবিতা

প্রদীপ ঘোষের দুটি কবিতা

বিতত বিতংস সাবানের বুদবুদে রামধনু রং দেখে যে ছেলেটি বিভোর! কোনওদিন গোলকের সান্দ্র রোদ্দুর ছুঁতে পারেনি তর্জনী কিংবা মধ্যমায়। হায়! এতদিনে আততায়ী খুঁজে পেয়েছি জীবন উপান্তে। কিন্তু বয়ে দিই আচমনে করপুটের যব তিল তুলসী, জবা ও কুসুমের সঙ্কাশ,…

অণিমা মিত্রর দুটি কবিতা

রসায়ন সারল্যের সহিত (ভিতর) কিছুটা ট্যালকম রেণু মিশাইয়া দিলে নাবালিকা বোধের শরীরে অঙ্কুরোদ্গম হয়। রসায়নাগার যৎপরোনাস্তি নাকাল ও হতাশ যুগান্তকারী এই গবেষণায়। পূর্ব হইতেই তাহার অভীপ্সা ছিল, আগামী রাস-পূর্ণিমায় সে বালিকাটিকে লইয়া ঝুলন উৎসব…

সৈয়দ কওসর জামালের দুটি কবিতা

মহড়া খুব বেশি একাকিত্ব একাকিত্ব করছ। শুধু কোলাহল চাই, ভিড় চাই, অনন্ত কথার স্রোত চাই! নিভৃতিমাত্রই বিষময়। এভাবেই ক্রমশ খোলা পাতা হয়ে উড়ছে তোমার দিন— প্রতিটি পাতায় লেখা থাকে বেঁচে থাকার সরল এক পথরেখা। অথচ সামনে ওঁৎ পেতে আছে তির্যক পথের বাঁক,…

স্বাগতা দাশগুপ্তের দুটি কবিতা

বিরহী শ্যামের গাথা 'কানু বিনা গীত নাই', কানুর সে-প্রাণে উঁকি দিতে চায় মন বিরহ-সন্ধানে। কত লোকে উঁকি দিল যুগ যুগ ধরে এ-মন নতুন করে কী বা খুঁজে মরে! কোন মণি-মুক্তো বুঝি ধুলোয় গড়ায় রাজা কৃষ্ণ মনে তার দুখী শ্যামরায়। রাধার বিরহ নয়, বিরহ…

প্রতিমা রায়বিশ্বাসের দুটি কবিতা

আগুন ফুল ওইখানে মন খানিকটা পাতার মত খাওয়া আছে, আর যে তরঙ্গে আলো এক রেখা, একবার জন্মালে মৃত্যু হয় না। শুধু ফিরে যাওয়া আছে তার। চলে যাওয়াও আছে। সহজ ভেদ্য নিকষ কালো আঁধারে। এ কারণে লিখে ফেলতে পারে ঝাঁকে ঝাঁকে কবি জ্বলন্ত ফুল। ও…

সব্যসাচী মজুমদারের দুটি কবিতা

গণতন্ত্র পারি ন্যূনতম অসুখের দিন অপাড়ের মতন রঙিন মায়ের ফণায় এসে পড়ে চুমু লিখি দাফনের পরে সাপেরা খোলশ ছাড়ে দ্যোতনায় আমাদের বাড়ি অনিবিড় মেতেছ জোয়ারে... আমি কী এখন আর গণতন্ত্র পারি! যতটা সহজ নদী ততই সন্তান দেশ…

সুহিতা সুলতানার কবিতাগুচ্ছ

গ্রহণ অগ্রহণের কালে মনে হচ্ছে বহুদিন অন্ধকার গুহায় বসে আমরা গিটারের কান্না শুনছি। আমাদের কণ্ঠস্বর, বিষাদ এখন চার দেয়ালের মধ্যে নিদ্রিত হয়ে আছে আর অনিদ্রা জেঁকে বসেছে আমাদের চোখের ভেতরে মন সে তো বহুদূর ভয়ঙ্কর উঁচু-নীচু পথ ধরে তার কাছে…

গৌরী মৈত্রর দুটি কবিতা

ভাগ-বাঁটোয়ারার ফল দুটো টুকরো হামেশাই দুইভাবে কথা বলে, যেখানেই দুটো ভাগ হয়, অথবা ফাটল ধরে, বেড়ে চলে তার সংখ্যাতত্ত্ব-- বিভাজন ব্যাখ্যার এই টানাটানিতে খোয়া গেছে কখন যে জয়ার হাঁস হারানের সিন্দুকের চাবি-- ক্যাম্পের বন্দরে বন্দরে ঘুরে…

সুকৃতি সিকদারের দুটি কবিতা

নোটিশ তোমাকে ভাবতে থাকা সেই বুক দোমড়ানো মোচড়ানো দিনগুলো খুব ভাল ছিল মনে হয় অসময়ে দাঁড়িয়ে এখন। ছলনা ছিল না কোনও দাগের ওপরে। দাগের ওপরে দাগ ছিল তুমি ছিলে দাগের আড়াল। সময় আসলে সেই চরম সাবান সব দাগ ধুয়ে দেয়, তবু ক্ষত মোছে…

অর্পিতা কুণ্ডুর দুটি কবিতা

নেই কী জানি কীসের রোদ কার দরবারে এসে পড়ে কার ঘন জ্যোৎস্নায় আবছায় নাচে হাহাকার যেদিকে বনের গান-- এলোমেলো, নিরাকার বায়ু তারও কি তেমন কেউ একেবারে আপনার নেই? ২ নিয়ে যাও। মিঠে পথ। কুয়াশার বাঁকে তালসারি ঝিরিঝিরি উড়ে আসে গতজন্মের…