বাংলায় প্রথম সম্পূর্ণ অনলাইন একটি সাহিত্য পত্রিকা

জোছনার গল্প

দু’দিন আগেও সকালে দোকানে এসেছিল লাবণ্য। সদ্য স্নান সেরে এসেছিল মনে হয়। ওর ভেজা চুলের গোছা লেপ্টে ছিল কপালের ওপরে। কানের পাশে ঝুমকোর মতো চুলের ডগায় থিরথির করে কাঁপছিল একবিন্দু জলকণা। আলো পড়ে হিরের কুচির মতো ঝলকাচ্ছিল। কী স্নিগ্ধ দেখাচ্ছিল…

হারিয়ে যাওয়া নদীটি

একটা ছোট্ট পাহাড়ি নদী ছিল। স্রোত তেমন নেই। স্বচ্ছ জল। তলায় রঙিন পাথর। গোল গোল। পাথরের ফাঁকে ফাঁকে মাছেরা খেলা করত। পায়ে হেঁটে অনায়াসে পেরোনো যেত সেই নদী। নদীর মাঝবরাবর এক মাঝারি পাথরখণ্ড। বরফের মতো ঠান্ডা জলে পা ডুবিয়ে দিয়ে ওই পাথরে বসে…