বা়ংলার প্রথম পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল সাহিত্য পত্রিকা

সম্পাদকীয়

কবির উচ্চারণ

কবিকে কে মনে রাখে? কেন, আমরা রাখি। তাঁর কবিতা পড়ি, পাঠ্যপুস্তকে থাকে, তাঁর গান শুনি, ক্কচিৎ তাঁর আঁকা ছবিও দেখি। সাহিত্য পাঠ করি, তাঁর লেখাকে উদ্ধৃতিচিহ্নের অবরোধে ব্যবহার করি। তাঁর জন্মদিন ও মৃত্যুদিন মনে রেখে মূর্তিতে, ছবিতে মালা দিই। এসবের কি প্রয়োজন নেই, মানে নেই কোনও? আছে নিশ্চয়ই। স্মরণের তো কোনও না কোনও চেহারা দরকার হয়। কবি সেখানে সার্থক কিনা কে বলবে, আমরা হয়তো সার্থক। কবির জীবনদর্শন আমরা আলগোছে সরিয়ে রাখি। যেকথা নিভৃতে উচ্চারিত হয়েছিল, মনন থেকে যা উৎসারিত হয়েছিল, তার অন্তরালটুকু ঘুচে যায়। তাকে জাগিয়ে রাখা বলে হয়তো কিন্তু আমাদের মনে তা জেগে থাকে কিনা বলা যায় না। অথচ তেমন হলে কবির জীবনের ধারায়, সাহিত্যে, সমাজজীবনে, ইতিহাসে ইতিবাচক সত্যটি বোঝা যেত।
আরও পড়ুন

প্রবন্ধ

দল দেশ রবীন্দ্রনাথ

একটি বাক্য বাংলা বলার জন্য অ-বাংলাভাষী রাজনৈতিক নেতা অনায়াসে বেছে নেন রবীন্দ্রনাথের কোনও গান বা কবিতার পঙ্‌ক্তি। কারও কিছু বলার থাকে না স্বাধীন দেশে। কিন্তু সত্যিই কি বলার থাকে না?
আরও পড়ুন

বিশেষ রচনা

আমার মার্কিনি ২

ক্যাম্পাস-সংলগ্ন কয়েকটা রাস্তাতেই ছিলাম ওই তিন বছরে। প্রথম বাড়ি ঠিক করে রেখেছিল প্রদীপরাই। প্রদীপ মানে প্রদীপ ঘোষ, ইন্ডিয়ানাতে রসায়নের ছাত্র, রুমি তথা দময়ন্তী বসুর বর।
আরও পড়ুন

ধারাবাহিক আত্মকথা

শেষবিকেলে সিমলিপালে পর্ব ৩৩

প্রচণ্ড বড় দিঘি, তার দু’পারে দুটি করে বড় বড় ঘাট। একটি করে মেয়েদের ঘাট, একটি করে ছেলেদের। মেয়েদের ঘাটে ছেলেরা যেত না, মেয়েরাও যেত না ছেলেদের ঘাটে। সে দিঘিতে বহু মেয়ে-পুরুষ সাঁতরে স্নান করত।
আরও পড়ুন

ধারাবাহিক উপন্যাস

এই মায়াপথ পর্ব ১

গিজার চালিয়ে গরম জলে স্নান করে নিল বিতান। স্নানের অবকাশ বা জায়গা, কোনওটাই সারাদিন মিলবে না। মাঙ্কি টুপি পরে নিল। ঠান্ডা লেগে যাওয়ার ধাত আছে, খুব ভোগায়। তাই সাবধান হওয়াই ভাল।
আরও পড়ুন

রম্যরচনা

ভুলে যাওয়ার রকমারি

ভুলে যাওয়াটা নাকি একটা অসুখ। কিন্তু আমার মনে হয়, ভুলে যাওয়াটা একটা সুখবিলাস। এই বিলাসিতাটি থাকলে অনেক দায়দায়িত্ব, চুক্তি, যুক্তি, কর্তব্য, গ্লানি, ইত্যাদি থেকে অনায়াসে মুক্তি পাওয়া যায়।
আরও পড়ুন

গল্প

এই আকাশ অন্য আকাশ

কুণালের দৃষ্টিতে মঞ্জুর দু’চোখের পাতায় মেঘ জমতে শুরু করেছে। পরিবেশটা পাল্টে যাক, অন্যরকম কিছু হয়ে উঠুক, কুণাল কোনওমতেই তেমনটা চাইল না। সে হঠাৎই উঁচু গলায় ডাকল, মাসিমা? চা হয়ে গেছে?
আরও পড়ুন

কবিতা

পুনর্মুদ্রণ : শঙ্খ ঘোষের কবিতা

ঘুঘু ঘুঘুর বাসা ভাঙবে ভেবে একদঙ্গল ঘুঘু সংসারকে দুষতে দুষতে উড়াল দিল চারপাশে জঙ্গলে। জঙ্গলে বেশ থিতু যখন সবাই কোথার থেকে ছোবল দিল গণ্ডাকয়েক কালকেউটের ফণা-- এদিক-ওদিক ছুটল সবাই। গলায় তুমুল শোর: ‘কেউ কারো মুখ দেখতে চাই না। দেখব না…
আরও পড়ুন

পড়শি দেশের গল্পকথা

বিয়ের নাচ

লুমনের উষ্ণ, নগ্ন বুকের পুরোটাই ওয়িইআওর বুকের মধ্যে কেঁপে ওঠে। লুমনে ওয়িইআওর গলা জড়িয়ে ধরে তার মাথা ওয়িইআওর ডান কাঁধের ওপর রাখে। তার চুল এসে পড়ে গাঢ় অন্ধকার জলপ্রপাতের মতো।
আরও পড়ুন

সাক্ষাৎকার

আমি আধুনিক নারীবাদী লেখক : আবুল বাশার

আমি যে উপন্যাস লিখেছি, ‘বাহিরা’ নামে, সেটাও নায়িকাপ্রধান। এখানে আমার কথা আছে। কিছু কিছু মেয়েদের দেখছি আমি, যে মেয়েদের জাগরণ অবশ্যম্ভাবী। মেয়েরা জাগবে। শুধু জাগবে না, জেগে উঠেছে। জেগে গেছে।
আরও পড়ুন

ভ্রমণ

গাড়োয়ালের গহীন পথে পর্ব ৫

বাজার ছাড়িয়ে হৃষীকেশ বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছতে প্রায় আধ ঘণ্টা সময় লাগল। দুটি বাসস্ট্যান্ডের একটা সরকারি। কিন্তু খবর নিয়ে জানলাম, এই বাসগুলো সাধারণত জেলা সদরের দিকে যায়। পাহাড়ের বেশি ওপরে যায় না।
আরও পড়ুন

সুইটজারল্যান্ডের সৌন্দর্যলোকে

‘ইয়ডলিং’ দিয়ে তারা জড়ো করে তাদের মেষের পালকে। সুইস আল্পসের সেই ইয়ডলিং রপ্ত করেই সুরলহরীতে জাদুর পরশ এনে সকলকে মোহিত করে দিয়েছিলেন কিশোরকুমার।
আরও পড়ুন

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

ডার্ক ওয়েব : ঈশ্বর ও শয়তানের আড্ডা

ডার্ক ওয়েব ও টর ব্রাউজার বন্ধ করে দিলে গুপ্তচরতন্ত্র আর অপরাধতন্ত্র কমজোরি হয়ে পড়বে বটে তবে তার সঙ্গে সঙ্গে গণতন্ত্রও ধরাশায়ী হবে। আসলে ডার্ক ওয়েব কথাটা শুনলে গা ছমছম করে বটে কিন্তু তার মধ্যে আলো আর অন্ধকার দুটোই আছে।
আরও পড়ুন

পরিবেশ

অদৃশ্যের কৃষ্ণ পদচিহ্ন

ইন্টারনেট, ক্লাউড স্টোরেজ বাদ দিয়ে আজ আর আমাদের পক্ষে বাঁচা সম্ভব নয়। কিন্তু তার আপাত পরিবেশবান্ধব চেহারাটার, গভীর কৃষ্ণ পদচিহ্নের কথাটা যেন ভুলে না যাই।
আরও পড়ুন

বাংলাদেশের হৃদয় হতে

জুয়েল মাজহারের কবিতা

লিখনসন্ততি "লেখাই হয় না আর এতো স্বপ্ন আক্রমণ করে" --আবদুল মান্নান সৈয়দ আর, আমা হেন অকৃতীঅধম যারা, তারা শূকরবৎস্যের ন্যায় নিখিলে প্রত্যহ কত কত লেখাপত্রলেখাপত্রলেখা লিখিয়া চলিছে অবিরাম ভরিয়া তুলিছে ক্রমে নিখিলের অখিল ভাগাড়…
আরও পড়ুন

ব্লগ

প্রতিপ্রস্তাব পর্ব ১৯

তিনি সর্বজনপ্রিয়। অথচ একটা সমাজে কবি বলতে যা বোঝায় তিনি প্রায় তাই। তিনি খবরের কাগজের জন্য জলমেশানো গদ্য লেখেননি, সংস্কৃতির সর্বস্তরে তাঁর ঔৎসুক্য ছিল কিন্তু কবিতা ছাড়া অন্যত্র তাঁকে খুব প্রগলভ দেখা যায়নি।
আরও পড়ুন

চলচ্চিত্র

মৃণাল সেনের ছবিতে মেয়েরা

মৃণাল সেন তাঁর ছবির পর্বে পর্বে এক সচেতন শিল্পীর পরিচয় দিয়েছেন। ছবিগুলিতে শুধু নারীর জীবনীশক্তিকে সূচিত করাই নয়, বাস্তববাদী, সমাজসচেতন নাগরিক হিসেবে মধ্যবিত্ত মানুষের দৈন্যদশাকে তুলে ধরেছেন।
আরও পড়ুন

সঙ্গীত

যেভাবে গান এল

গান্ধর্ব যুগ হল একটা সময়কাল, যে সময়ে আমাদের দেশে ‘গন্ধর্ব’ নামে একশ্রেণির মানবজাতির কাজকর্ম উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছেছিল। অন্যান্য বিষয়ের মতো আমাদের সঙ্গীত নিয়ে সেইসময় এত চর্চা, গবেষণা, সৃষ্টি, রূপান্তর, পরিবর্তন হয়েছিল যে বলার নয়।
আরও পড়ুন

নাটক

ভাসের নাটক : এক মহাকাব্যিক দর্শন

একটি নাটক যা মহাভারত সংশ্লিষ্ট এবং যা দশ রূপকের মধ্যে ‘ব্যায়োগ’ শ্রেণিতে পড়ে। সেই ‘মধ্যম ব্যায়োগে’-ও প্রচলিত মহাভারতের চরিত্র অবলম্বন করে তুমুল টানাপোড়েন বোনেন রচয়িতা, যা প্রথাসিদ্ধ মহাভারতকে অনুসরণ করছে না।
আরও পড়ুন

ফিরে পড়া

বাংলা-লেখক

আমাদের দেশে পাঠকসংখ্যা অতি যৎসামান্য। এবং তাহার মধ্যে এমন পাঠক "কোটিকে গুটিক' মেলে কিনা সন্দেহ যাঁহারা কোনো প্রবন্ধ পড়িয়া, কোনো সুযুক্তি শুনিয়া, আপন জীবনযাত্রার লেশমাত্র পরিবর্তনসাধন করেন।
আরও পড়ুন

বইপত্র

ডাকটিকিটের অজানা গল্প

বইটির প্রথম দুই অধ্যায়ে রয়েছে ডাকটিকিটের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত। দুটি অধ্যায়ই আয়তনে দীর্ঘ। পরের অধ্যায়গুলি তুলনামূলকভাবে কম দৈর্ঘ্যের, সেখানে রকমারি ডাকটিকিটের পিছনে লুকিয়ে থাকা কাহিনিটি শুনিয়েছেন লেখক।
আরও পড়ুন

মৎস্যজীবীরা সামাজিকভাবে আজও পিছিয়ে

মৎস্যজীবীরা মূলত গরিব মানুষ। তাঁদের একটা নৌকা আর একটা জালই মাছ ধরতে সম্বল। এই দুর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে বড় টাকার পুঁজির অনুপ্রবেশ ঘটছে মাছ ধরার ক্ষেত্রে। আবার পরম্পরাগতভাবে যাঁরা মৎস্যজীবী নন এমন প্রায় সব শ্রেণির লোকজনের বাড়বাড়ন্ত সেখানে।
আরও পড়ুন

লোকায়ত

জলপাইগুড়ি জেলার লৌকিক পুরুষ দেবতা

অন্য কোনও দেবদেবীর সঙ্গে হয়তো সম্পর্ক ক্ষীণ, অথচ তিনি গ্রামেরই দেবতা, গ্রামদেবতা, তিনি হয়তো কোনও পূর্বপুরুষ দেবতা নামেও চিহ্নিত হতে পারেন; তবে একক থানে তাঁর পূজার্চনা হয় নির্দিষ্ট লোকায়ত রীতিতে।
আরও পড়ুন